একটি সার্টিফিকেট বদলে দিতে পারে আপনার জীবন!

আজ বেকারত্ব একটি বিশাল সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে, তারপরও এই বৃহৎ জনসংখ্যার দেশে সুদক্ষ জনবল, কারিগর খুঁজে পাওয়া দুস্কর। কাজের লোক আছে কিন্তু সুদক্ষ লোকের সংখ্যা খুবই কম।
ডিপ্লোমা/বিএসসি ইন ফুড-ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিগ্রি, অনার্স, মাস্টার্স, এমবিএ করা জনবল অসংখ্য অথচ কারিগরি, ক্যাটারিং, টেকনিক্যাল শিক্ষায় রয়েছে অনেকের অনীহা। অথচ এই শিক্ষায় চাকুরি নিশ্চিত। তাই অনার্স মাস্টার্স শেষ করে যদি আপনি রন্ধন শিল্পে ক্যারিয়ার গড়তে চান তাহলে করে নিতে পারেন ৬ মাসের একটি হোটেল ম্যানেজমেন্ট কোর্স (যেমন কুক, সেফ, বেকারি এন্ড পেস্ট্রি, ফুড সার্ভিস, হাউসকিপিং), তাতে করে আপনার ক্যারিয়ার হবে অনেকটাই নিশ্চিত। আর এই কোর্স শেষে কয়েক বছর কাজ করার পর আপনি ভাল চাকুরির অফার নিয়ে বিদেশ যেতে পারেন।

যারা ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং করছেন বা করেছেন তারাও এই পেশায় ক্যারিয়ার গড়তে পারেন। যেমন সেফ, কুক, বেকারি এন্ড পেস্ট্রি এই বিষয়ে ৪-৬ মাসের কোর্স করে আপনি একটি স্মার্ট ক্যারিয়ার গড়তে পারেন অনায়াসে। কারণ খাদ্য শিল্পের ক্যারিয়ার কোন স্মার্ট ক্যারিয়ার নয়। অনেক কেই শুনি ৫/৬/৭/৮ হাজার টাকায় চাকুরি করতে অথচ হোটেল বা রেস্তরা শিল্পে বেতন কম করে হলেও ১৫-২০ হাজার টাকা। আর এই শিল্পে ভবিষ্যৎ খুবই উজ্জ্বল। দিন দিন এই শিল্পের প্রসার ঘটছে আর খাদ্য শিল্প দিন দিন বন্ধ হচ্ছে। আর খাদ্য শিল্পের বেশির ভাগ কর্ম ঘণ্টাই ১০-১২ ঘণ্টা, অনেক জায়গায় ১৫-১৭ ঘণ্টা কাজ করতে হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.


*