মাল্টি এক্সপার্ট হতে হলে করণীয়

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

চাকুরী পরিবর্তন বনাম কাজ শিখা নিয়ে কিছু কথা:
বর্তমান চাকুরির বাজারে দক্ষ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রার্থীরাই বেশি এগিয়ে থাকেন। আবার দেখা যায় কিউ সি তে লোক নিবে কিন্তু আপনি উৎপাদনে অভিজ্ঞ। আপনার কিউসিতে নলেজ থাকলে চাকুরীটা হয়েও যাবার সম্ভাবনা আছে।
কিংবা আপনি যেকোন সেক্টরে কর্মরত রয়েছেন কিন্ত সেটা পরিবর্তন করলে ভাল সেক্টরে যোগদান করতে পারবেন৷ কিন্তু সেই বিষয়ে আপনার অভিজ্ঞতা দরকার বা ভাল নলেজ থাকা দরকার। কিন্ত সেটা এক চাকুরীতে থেকে অন্যটা শিখা সম্ভব না। যারা এই ধরনের সু্যোগ পাচ্ছেন না তাদের জন্য একটা প্রফেশনাল ট্রেনিং করানোর সু্যোগ করে দিচ্ছে ফিয়াব ফাউন্ডেশনের সিনিয়র আইকনগন। ট্রেইনার হিসেবে থাকবেন ১৫-২৫ বছর অভিজ্ঞতা সম্পন্ন সকল বড় ভাইরা এবং দেশের খ্যাতনামা প্রশিক্ষকগন যারা জিএম, ডিজিএম, এজিএম, ফ্যাক্টরি ম্যানেজার হিসেবে নিয়োজিত আছেন। ল্যাবে সব ধরনের কাচামালের পরিক্ষা শিখানো হবে এবং সকল খাদ্যপন্য বানানো শিখানো হবে রেসিপিসহ। কাচামাল এবং ব্যবহৃত উপাদান গুলো সর্বরাহ করবেন বিশ্বের সবচেয়ে ভালো নামকরা প্রতিষ্ঠান।
আপনি যেকোন
Any Product R&D,
Product Development,
Quality Assurance,
Finished Goods Testing,
Market Sample Analysis করতে পারবেন এই ল্যাবে।
সিনিয়রগন লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে নিজস্ব অফিস , ল্যাব, উৎপাদনের যন্ত্রপাতি কিনে দিয়েছেন চালানোর খরচ দিতে হবে আপনাদের। বিস্তরিত জানতে চলে আসুন উত্তরা অফিসে। কল করুন ০১৭১৭১০৩৫৬৫, ০১৯১১৭৬৩৮১০

সাবধান হুমরি খেয়ে পরবেন না, লোন নিয়ে লোপাট!

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

কোম্পানী যত বড়ই হোক জব সিকিউরিটি আগে জেনে নিন। তারপর ভাবুন চাকুরিতে যাবেন কিনা?
মাসল পাওয়ার যাদের বেশি টাকাও বেশি, জব রিস্ক তত বেশি !
বিশেষ করে যারা ইলেকট্রনিকস, গার্মেন্টস, টেক্সটাইলস, মাটি বেঁচার ব্যবসা থেকে নতুন ফুডের ব্যবসায় নাম লিখাচ্ছেন তাদের থেকে বিরত থাকবেন, কারন সকালে বলতে পারবেন না বিকালে আপনি চাকুরিতে থাকবেন কিনা। কারন এরা ব্যাংক লোন নিয়ে টাকা লোপাট করে চলে যায় আর আমাদের রাস্তায় ফেলে যায়। তাই যারা ভাল অবস্থানে আছেন ডাবল স্যালারী অফার পেয়ে নিজের ক্যারিয়ার রিস্ক এ ফেলবেন না। আর খেপ মারতে চাইলে ৬-৯ মাসের খেপ মারতে পারেন। ১৫ বছরের বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে লিখা। অনেক বড় বড় গ্রুপ আছেন যখন তখন কান কথা শুনে বা গ্রুপিং এর স্বীকার হয়ে ক্ষণিকেই চাকুরি হারান কোন কারন ছাড়াই নিজের চোখে দেখেছি যা বলবার ভাষা নাই। -কে আর ইসলাম

চাকুরির নিশ্চয়তা কোথায়-১?

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

এই জিবনে কত কি আর দেখবো গ্রুপিংয়ের ফলাফল: দেশের খাদ্য উৎপাদন কোম্পানিগুলো একজন দক্ষ লোক খোঁজে পেয়ে তাকে ডাবল বেতন গাড়ি আরও কত সু্যোগ সুবিধা দিয়ে আদর করে নিয়োগ দেয়। তারপর ৬মাসে জব কনফার্ম লেটার অনেকে পায় আর পলিটিক্স এর স্বীকার হলে তা পেতে লাগে ৯ মাস। বছর ঘুরতেই যখন শুনে তার প্রয়োজন শেষ বাধ্য করে রিজাইন দিতে নয়ত যেকোনো সময় হতে পারে টার্মিনেট তখন কি অবস্থা হয়? যার ব্যাথা সেই বুঝে।

দয়া করে কোন কারন ছাড়া কাউকে চাকুরি থেকে বাদ দেবার আগে একটা মানুষের সংসার, ছেলেমেয়ে, বৃদ্ধ বাবা মায়ের কি হাল হয় তা ভেবে দেখবেন। একটা লোক ১০ বছর এক গ্রুপে কাজ করে তা ছেড়ে ১ বছরে যদি এমন একটা অবস্থায় পড়ে তাও কারন ছাড়াই এরা কি করে নতুন জব পাবে ভেবেছেন কি? সামনে যখন ঈদ তখন বাড়তি খরচ এর টাকা-টা কোথায় পাবে চাকুরি থেকে বাদ দেবার আগে একটু ভেবে দেখবেন। নন টেকনিক্যাল একটা লোক কি করবে কেউ কি বলতে পারেন?